শিরোনাম :
নবীনগর পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদপ্রার্থী মেহেদী হাসান জুরালের নির্বাচনী অফিস উদ্বোধন নির্বাচনী প্রচারণায় এগিয়ে উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী এইচ এম আল আমিন আহমেদ স্থানীয় জাতীয় সংসদ সদস্য ফয়জুর রহমান বাদল এর নির্দেশনায় সৌহার্দ্যপূর্ণ পরিবেশে দু”পক্ষের সম্মতিতে বাড়ীতে ফিরলেন জামিনে থাকা হত্যা মামলার আসামীরা বিদুৎতের খুটি থেকে তিনটি ট্রান্সমিটার চুরি কৃষ্ণচূড়া ফুলের রঙে সেজেছে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগরের  ভিটিবিষাড়ার পথঘাট। নবীনগর ইচ্ছাময়ী পাইলট উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ের পরিচালনা কমিটি অভিভাবক প্রতিনিধি নির্বাচন অনুষ্ঠিত নবীনগর ইচ্ছাময়ী পাইলট উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ের পরিচালনা কমিটি অভিভাবক প্রতিনিধি নির্বাচন অনুষ্ঠিত নবীনগর ইচ্ছাময়ী পাইলট উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ের পরিচালনা কমিটি অভিভাবক প্রতিনিধি নির্বাচন অনুষ্ঠিত মোঃ আব্দুল কাইয়ুমের জন্য দোয়া চেয়েছেন পরিবার মোঃ আব্দুল কাইয়ুমের জন্য দোয়া চেয়েছেন তার পরিবার
শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ০৪:০০ পূর্বাহ্ন

অবৈধ ড্রেজারের বিষয়ে জাতীয় সংসদ সদস্য ফয়জুর রহমান বাদল এর কঠোর নিদের্শনার পর নড়েচড়ে বসেছেন উপজেলা প্রশাসন

প্রতিনিধির নাম / ২২৪ বার
আপডেট : রবিবার, ১১ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪

  • ব্রাহ্মণবাড়িয়া ৫ নবীনগর আসনের নব নির্বাচিত জাতীয় সংসদ সদস্য ফয়জুর রহমান বাদল শৃঙ্খলা কমিটির অভিষেক অনুষ্ঠানে ড্রেজার দিয়ে বালু ভরাট ও অবৈধ ড্রেজারের বিষয়ে নজরদারী ও প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে প্রশাসনকে নির্দেশ প্রদান করেন।জাতীয় সংসদ সদস্য এর এ  ঘোষণার   পর নবীনগর উপজেলা প্রশাসনের তৎপরতা বৃদ্ধি পায়। নবীনগরে শনিবার ১০/০২/২৪ তারিখে বিভিন্ন অনিয়মের বিরুদ্ধে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয়। ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তানভীর ফরহাদ শামীম। বিদ্যাকুট ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের বিদ্যাকুট গ্রামে খালের মাঝখানে সরু দেয়াল তুলে দুইপাড় ভরাট করার চেষ্টা করছিলেন নুর মিয়া বাবুর্চি, পিতা: শহিদ মিয়া বাবুর্চি।অপরাধ স্বীকার করায় তাকে পরিবেশ সংরক্ষণ আইনে এক লক্ষ টাকা জরিমানা করা হয় এবং নির্মিত দেয়াল ভেঙে দেওয়া হয়। অভিযান পরিচালনা কালে নুর মিয়াকে দুইদিনের মধ্যে মালামাল সরিয়ে নিতে নির্দেশ দেওয়া হয়। পরবর্তীতে আবার চেষ্টা করলে দ্বিগুণ শাস্তি দেয়া হবে বলে সতর্ক করা হয়। অপর একটি অভিযানে পৌরসভার অন্তর্গত আলিয়াবাদ সংলগ্ন বুড়ি নদী থেকে দুইটি ড্রেজারের মাধ্যমে মাঝিকাড়া চকে অবৈধভাবে ফসলি জমি ভরাটের অপরাধে ড্রেজার মালিক আওয়াল মিয়াকে, পিতা- হরমুজ আলী এক লক্ষ পঞ্চাশ হাজার টাকা এবং আরেক ড্রেজার মালিক কাদির মিয়ার পক্ষে ম্যানেজার আবুল হোসেনকে পঞ্চাশ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করার সময় ড্রেজারের পাইপ নষ্ট করা হয়েছে এবং সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়েছে। এসময় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট বলেন পরবর্তীতে আবারও ফসলি জমি ভরাট করলে নিয়মিত মামলা দেওয়া হবে। ভ্রাম্যমান আদালতে সহযোগিতা করেন নবীনগর থানা পুলিশ।
Facebook Comments Box


এ জাতীয় আরো সংবাদ